বিএনপির মতো বড় দল অংশ না নেওয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম : ইসি নুরুল হুদা

সিলেট বিভাগ

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা  বলেছেন, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম ছিলো। প্রথম ধাপে ভোট পড়েছিলো ৪৩ দশমিক ৩২ শতাংশ। বিএনপি অংশ না নেওয়ায় ভোটার উপস্থিতি কম বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি জানান, বিএনপি একটি বড় রাজনৈতিক দল। সে দল উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম ছিলো। তবে প্রথম ধাপের নির্বাচন মোটামুটি সুষ্ঠু ও সুন্দর হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

তিনি আরো জানান, এবার দ্বিতীয় ধাপের (১৮ মার্চ) নির্বাচনও সুষ্ঠু করে তোলতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল সদস্য ও নির্বাচনী কর্মকর্তাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি জানান, কোন অবস্থাতেই নির্বাচনে সহিংসতা বরদাশত করা হবে না। সহিংসতা বন্ধে আইনশৃংখলা বাহিনীকে কঠোর হওয়ার আহবান জানান তিনি। তিনি জানান, আগামী ৪র্থ ও ৫ম ধাপের নির্বাচনে ১০টি উপজেলার সকল কেন্দ্রে ইভিএম এ ভোট গ্রহণ অনুষ্টিত হবে।

বুধবার সকাল ১১টায় জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, সিলেটের সম্মেলনকক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বিষয়ে মতবিনিময় সভায় প্রধান অথিতির বক্তব্যে এমন কথা বলেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা আরো  বলেন, প্রশাসনের আন্তরিকতার ফলে ভোট উৎসব সুষ্ঠু হয়ে থাকে। প্রত্যেক ভোটার যেনো বিনা বাধায় তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে এমন পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। ভোট কেন্দ্রে যেনো কোন ভোটারকে বাঁধা প্রধান না করা হয় সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। ভোটগ্রহণ শেষে প্রত্যেক প্রার্থীর একজন করে এজেন্টের উপস্থিতিতে ভোটগণনা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তার স্বাক্ষর নিতে হবে। জাল ভোট প্রদান, বিশৃংখলা রুখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের একযোগে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

সকাল ১১টা থেকে শুরু হওয়া এ মতবিনিময় সভায় সিলেটের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। এসময় তিনি নির্বাচন সুষ্ঠু করতে কর্মকর্তাদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন ।

Leave a Reply