নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হবে না : চরমোনাই পীর

রাজনীতি

চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হবে না। কারণ এ সংসদ বহাল রেখে আওয়ামী লীগ ৫ জানুয়ারি মার্কা ভোট করে ক্ষমতায় থাকতে চায়। তাই ভোটের আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে।

শুক্রবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত মহাসমাবেশে মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম এসব কথা বলেন।

রেজাউল করীম বলেন, দেশে সাধারণ মানুষের কোনো অধিকার নেই। স্বাধীনতা ও অধিকার ভোগ করছে আওয়ামী লীগ ও তাদের দোসররা। স্বাধীনতার পর যারাই ক্ষমতায় এসেছে তারাই জনগণের অধিকার হরণ করেছে। গুম খুন করে দেশকে একটি ভয়ানক নৈরাজ্যে পরিনত করেছে। এসবের পরিবর্তন দরকার।

ক্ষমতাসীনরা দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। কোনো স্থানীয় নির্বাচনকে তারা সুষ্ঠু হতে দেয় নি। তাই এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না। কারণ সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন হলে তা কখনো সুষ্ঠু হবে না। তাই এ সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন হবে না। নির্বাচন হতে হবে সবার অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে।

রেজাউল করীম বলেন, বাংলাদেশে ইসলামের জাগরণ তৈরি হয়েছে। এখন আর বাংলাদেশে ইসলামকে থামিয়ে রাখা যাবে না। ইসলামী শাসন প্রতিষ্ঠা হলে কখনো নারীদের ঘরে বন্দী রাখা হবে না। অন্য ধর্মের লোকদের সমান সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে। নারীদের অধিকার নিশ্চিত করা হবে। তাদের অধিকার আরও বাড়বে।

রেজাউল করীম আরো বলেন, দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ইসলামী আন্দোলন ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে। দেশের জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দিবে।

মহাসমাবেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোটের আগে সংসদ ভেঙে দেওয়ার পাশাপাশি সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নিরপেক্ষ সরকার গঠন করা, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করা, ভোটের আগে সেনা মোতায়েন, ভোটের দিন সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা প্রদান, ইভিএম বাতিল, রাজনৈতিক কর্মীদের হয়রানি বাতিল, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানায় ।

Leave a Reply