গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

সিলেট বিভাগ

৩ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার : সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

বুধবার (৩ অক্টোবর) সকাল ৮টা থেকে ৯টি কেন্দ্রে শুরু হওয়া এই ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে ভোট গণনা।

গোলাপগঞ্জ জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা খোরশেদ আলম জানান, সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে ভোটগ্রহণ।

এ ভোটের লড়াইয়ে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু ছাড়াও রয়েছেন তিন স্বতন্ত্র প্রার্থী। তারা হলেন, জগ প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল। মোবাইল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহিন ও নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস।

৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ২১হাজার ৬শত ৩২জন। তারমধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১০হাজার ৯শত ৫৮জন ও মহিলা ভোটার সংখ্যা ১০হাজার ৬শত ৭৪জন।

বুধবার সকাল ১১টার দিকে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলুর সমর্থকদের সাথে এলাকাবাসীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পৌর এলাকার নুরুপাড়া রঙ্গাই বিছরা এলাকার মকছুদ হোসেন বাবুলের দুই পুত্র মুন্না আহমদ ও মান্না আহমদ আহত হন। খবর পেয়ে র‍্যাব-বিজিবি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এছাড়া আর কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

এই পৌরসভায় সর্বশেষ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন জাকারিয়া আহমদ পাপলু। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক প্রয়াত মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী। এই নির্বাচনে সিরাজুল জব্বার চৌধুরী বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। গত ৩১ মে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী মৃত্যুবরণ করায় মেয়র পদটি শূন্য হয়।

Leave a Reply