সৌদি আরবের মক্কায় লাখো মুসল্লির হজ পালন

আন্তর্জাতিক

রিয়াদ : সৌদি আরবের মক্কার ঐতিহাসিক আরাফাত ময়দানে পালিত হলো পবিত্র হজ। এসময় লাখো মুসলমানের ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখর ছিল আরাফাতের ময়দান।

সৌদি আরবের স্থানীয় সময় সোমবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে আরাফাতের মসজিদে নামিরাহতে হাজিদের উদ্দেশে হজের খুতবা পাঠ করেন মদিনার মসজিদে নববীর ইমাম ও খতিব ড. হোসাইন বিন আবদুল আজিজ আল শাইখ। পৌনে এক ঘণ্টাব্যাপী খুতবার পর দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে জোহর ও আসরের কসর সালাতে ইমামতি করেন তিনি।

সোমবার দুপুরের আগেই মুসল্লিদের আগমনে কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে আরাফাত ময়দান ও এর আশপাশের এলাকা। নিয়ম অনুযায়ী হজের দিনে সারাক্ষণ আরাফাতে অবস্থান ফরজ। সে অনুযায়ী, সোমবার সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সমবেত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা সেখানেই কোরআন পাঠ, নামাজ ও দোয়ায় মশগুল থাকবেন। সবার মুখেই এখন আল্লাহর নাম। বিশ্ব ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনায় দোয়াপ্রার্থী সমবেত প্রত্যেক ধর্মপ্রাণ মুসল্লি।

আরাফাত ময়দানে অবস্থিত বিশ্বের সবচেয়ে বড় মসজিদ, মসজিদে নামিরাহতে খুতবা পাঠ করেন মদিনা মসজিদে নববীর ইমাম ও খতিব ড. হোসাইন বিন আবদুল আজিজ আল শাইখ। খুতবার সঙ্গে নামাজ ও দোয়ায় অংশ নেওয়ার মধ্য দিয়ে আল্লাহর রহমত কামনা করেন লাখো হজ পালনকারী।

সূর্যাস্ত পর্যন্ত সেখানেই লাব্বাইক ধ্বনির সঙ্গে চলবে একটানা ইবাদত। সূর্যাস্তের পর পাঁচ কিলোমিটার দূরে মুজদালিফার উদ্দেশে আরাফাত ছাড়বেন মুসল্লিরা। সেখানে মাগরিব ও এশার নামাজ একসঙ্গে আদায়ের পর খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করবেন।

মুজদালিফা থেকে শয়তানের উদ্দেশে মারার জন্য পাথর সংগ্রহ ও ফজরের নামাজ আদায় করে হাজিরা আবারও ফিরবেন মিনায়। পরদিন মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত ইবাদত বন্দেগিতে মশগুল থেকে জামারায় শয়তানকে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়ার পর আল্লাহর সন্তষ্টি লাভের জন্য পশু কোরবানি দেবেন। আর এরই মধ্য দিয়ে শেষ হবে পবিত্র হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা।

Leave a Reply