ফোর্সবার্গের গোলে বাজিমাত, ২৪ বছর পর কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেন

খেলার খবর

মস্কো : রাশিয়া বিশ্বকাপে নকআউট পর্বের ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত এমিল ফোর্সবার্গের একমাত্র গোলে ১-০ গোলে সুইডেনের বাজিমাত। ম্যাচের ৬৬ মিনিটে দুর্দান্ত এমিল ফোর্সবার্গ সুইডেনের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন। ২৪ বছর পর আবার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে সুইডেন।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ রাত সময় রাত আটটায় রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে মাঠে নামে এই দুইদল। এক গোল করে সুইডেনকে ১-০ গোলের লিড এনে দিলেন নাম্বার টেন ইমিল ফোর্সবার্গ। এই জয়ের ফলে সুইডেন কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে আজ রাতেই ইংল্যান্ড-কলম্বিয়ার ম্যাচের বিজয়ীর সাথে।

যে গোলটি হলো সেটি আসলে দারুণ এক পরিকল্পিত ও গোছানো আক্রমণের ফল। শেষে কাজে দিয়েছে ফোর্সবার্গের মাথা। বাঁ পাশ থেকে আক্রমণ সুইডিশদের। বড় ডি এর ঠিক উপরটায় বল পেয়ে মুহূর্তে বল নিয়ে সামান্য সরে জায়গা বের করেই প্রবল গতির শট নিলেন তারকা ইমিল ফোর্সবাগ। সুইস গোলকিপার ইয়ান সমারের দর্শক হয়ে দেখা ছাড়া আর কিছু করার ছিল না।

ম্যাচে শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণ আর পাল্টা আক্রমণ। সুযোগও তৈরি হয়েছে অসংখ্য। কিন্তু সুইজারল্যান্ড আর সুইডেনের ফুটবলাররা সম্ভবত মাঠে নেমেছিলেন গোল মিসের মহড়া দেয়ার জন্যই। যার ফলে দু’দলের খেলায় তীব্র উত্তেজনা, প্রচন্ড গতি আর হাই প্রেসিং ফুটবল খেলায় প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল গোলশূন্য সমতায়। কেউ কোনো গোল করতে পারেনি।

ম্যাচের সবচেয়ে সুবর্ণ সুযোগটি সুইডেন পেয়েছিলন ৪২ মিনিটে। কিন্তু সেই দারুণ সুযোগটির অপচয় করে ফেললো সুইডিশরা। নিশ্চিত গোলের সুযোগ। এমন সুযোগ আর কখনও তারা পাবে কি না সন্দেহ।

মিকায়েল লাসটিগ ক্রস দেন আলবিন একদালকে। মাথা চোঁয়ালেও বলটি প্রবেশ করে যায় সুইজারল্যান্ডের জালে। কিন্তু তিনি পায়ের আলতো ছোঁয়ায় চেয়েছিলেন বলটি জালে প্রবেশ করাতে। সামনে গোলরক্ষকও নেই। একেবারে ফাঁকা পোস্ট। এমন সুযোগটা নষ্ট করলেন একদাল, পায়ে বল লগাতে গিয়ে। বলের গতির কারণে সেটি সোজা উঠে গেলো আকাশে। ফল, পোস্টের অনেক ওপর দিয়ে বলটি বাইরে।

তার আগে পর পর দুটি দারুণ সুযোগ মিস করেছিল সুইজারল্যান্ড। ৩৮ মিনিটে কর্নার কিক থেকে বল নিয়ে ওয়ান-টু ওয়ান পাসে স্টিভেন জুবের আর জেমাইলি মিলে বল নিয়ে আসেন সুইডেনের পোস্টের সামনে। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে জেমাইলি একেবারে ফাঁকা পোস্ট পেয়েও বলটি মেরে দিলেন বারের ওপর দিয়ে। সোজা শট নিতে পারলে, নিশ্চিত গোলের সুযোগ ছিল। ২ মিনিট পর আবারও দারুণ একটি সুযোগ। এবার জেমাইলি সেই সুযোগটি নষ্ট করে দেন। সুইডেনের জাল খুঁজে পেলো না তার শট।

সুইডেন একাদশ : রবিন ওলসেন, মিকায়েল লাসটিগ, ভিক্টর নিলসন লিন্ডেলফ, আন্দ্রেস গ্রাঙ্কভিস্ট, লুডউইগ অগাস্টিনসন, ভিক্টর ক্লায়েসন, গুস্তাভ এসভেনসন, আলবিন একদাল, এমিল ফরসবার্গ, মার্কাস বার্গ, ওলা তোইভোনেন।

সুইজারল্যান্ড একাদশ : ইয়ান সোমের, মিকায়েল ল্যাঙ, ইয়োহান জুরু, ম্যানুয়েল আকানজি, রিকার্ডো রদ্রিগেজ, ভ্যালন বেহরামি, গ্রানিত জাকা, জাদরান শাকিরি, ব্লেরিম জেমাইলি, স্টিভেন জুবের, জোসিপ দ্রিমিক।

Leave a Reply