কলম্বিয়ার বিপক্ষে মধুর প্রতিশোধ, বাজিমাত জাপানের!

খেলার খবর

কলম্বিয়াকে হারিয়ে রাশিয়ার আসরে শুভসূচনা করেছে জাপান।

‘এইচ’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে বিজয়ী হয়েছে জাপান। এ জয়ে গত ব্রাজিল বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে কলম্বিয়ার কাছে ৪-১ গোলে হারের মধুর প্রতিশোধও নিল এশিয়ার দলটি।

এশিয়ার কোনো দেশ বিশ্বকাপে এই প্রথম দক্ষিণ আমেরিকার কোনো দেশকে হারাল।

আগের তিন ম্যাচে জাপানের কাছে অজেয় থাকার আত্মবিশ্বাস নিয়ে সারানস্কের মরদোভিয়া অ্যারেনায় মঙ্গলবার খেলতে নামা কলম্বিয়া ধাক্কা খায় ষষ্ঠ মিনিটে। শিনজি কাগাওয়ার সফল স্পট কিকে এগিয়ে যায় জাপান।

ডিফেন্ডোরদের বোকা বানিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া ইউয়া ওসাকোর শট গোলরক্ষক দাভিদ অসপিনা ফেরানোর পর কাগাওয়ার ফিরতি শট হাত দিয়ে আটকান কার্লোস সানচেস। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজানোর সঙ্গে লাল কার্ডও দেখান কলম্বিয়ার এই মিডফিল্ডারকে। এবারের বিশ্বকাপে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে লাল কার্ড দেখলেন তিনি।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয় দ্রুততম সময়ে (দুই মিনিট ৫৬ সেকেন্ড) লাল কার্ড পাওয়ার তালিকায় নাম উঠল সানচেসের। রেকর্ড হোসে আলবার্তো বাতিস্তার। ১৯৮৬ সালের মেক্সিকো বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের ৫৪তম সেকেন্ডে লাল কার্ড পেয়েছিলেন উরুগুয়ের এই খেলোয়াড়।

প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামা কলম্বিয়ার তারকা ফরোয়ার্ড ফালকাওয়ের দ্বাদশ মিনিটের ভলি গোলরক্ষকের গ্লাভসে জমে যায়। একটু পর তাকাসি ইনুইয়ের শটে বল দূরের পোস্ট দিয়ে বেরিয়ে গেলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নিতে পারেনি জাপানও।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে কলম্বিয়াকে আবারও হতাশ করেন ফালকাও। সতীর্থের লম্বা করে বাড়ানো বল ঠিকঠাক লক্ষ্যে রাখেতে পারেননি ৩২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। বল তার বুটের ডগায় লেগে গোলরক্ষকের গ্লাভসে চলে যায়।

৩৯তম মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে সমতায় ফেরে ব্রাজিল বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠা কলম্বিয়া। হুয়ান কিনতেরোর শটে বল লাফিয়ে ওঠা জাপানের রক্ষণ দেয়ালের নিচ দিয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে জালে ঢোকে। গোলরক্ষক বল গ্লাভসে নিলেও শেষ রক্ষা হয়নি, বল এর আগেই গোললাইন পেরিয়ে গিয়েছিল।

গোলদাতা কিনতেরোকে তুলে নিয়ে ৫৯তম মিনিটে ব্রাজিল বিশ্বকাপে গোল্ডেন ‍বুট জেতা তারকা রদ্রিগেসকে নামান কলম্বিয়া কোচ।

কাগাওয়ার বদলি নামা কেইসুকে হোন্ডার কর্নারে ইউয়া ওসাকোর হেডে গোলরক্ষক পরাস্ত হলে ৭৩তম মিনিটে এগিয়ে যায় জাপান।

শেষ দিকে সমতায় ফেরা গোলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছিল কলম্বিয়া। কিন্তু ম্যাচের প্রায় পুরোটা সময় ১০ জন নিয়ে খেলা দক্ষিণ আমেরিকার দলটি কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায়নি।

Leave a Reply