আপিলে খালেদা জিয়ার জামিন বহাল থাকলেও মুক্তিতে বাধার পাহাড়

রাজনীতি

বহুলালোচিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। একই সাথে আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আপিল নিষ্পত্তিরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আপিল বিভাগ বিএনপি নেত্রীর জামিন বহাল রাখলেও এখনই খালেদা জিয়ার মুক্তি পাওয়া সহজ হবে না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে তার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বুধবার (১৬ মে) দুপুরে বলেন, সরকার তো সব সময় বাধা দেয়। এখন তার বিরুদ্ধে অন্য যেসব মামলা আছে সেগুলোতে দ্রুত হাইকোর্ট থেকে জামিন নেওয়ার চেষ্টা করবো। আইনি প্রক্রিয়ায় সব বাধা দূর করা হবে।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকা, কুমিল্লা ও নড়াইলে বিচারাধীন আরও ছয় মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় দু’টি, কুমিল্লায় তিনটি ও নড়াইলে একটি মামলা রয়েছে।

জয়নুল আবেদীন জানান, ঢাকার মামলা দুটি শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার (১৭ মে) দিন ধার্য করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বুধবার (১৬ মে) সাংবাদিকদের বলেন, আপিল বিভাগ খালেদা জিয়ার আপিল নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন। এখন আপিল শুনানির জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া নিম্ন আদালতে এই মামলার বিচার নয় বছর ঝুলিয়ে রেখেছিলেন। আপিল বিভাগের এ আদেশের ফলে এখানে আর বিচারকে তিনি বিলম্বিত করতে পারবেন না বলে আশা করা যায়।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কয়টি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে, কয়টি মামলায় জামিন নিতে হবে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাহবুবে আলম বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা এ তথ্য দিতে পারবেন।

তবে পরে তিনি আরো বলেন, সচরাচর কোনো আসামির যদি একাধিক মামলা থাকে, তাহলে সেসব মামলায় জামিন না পাওয়া গেলে মুক্তি পাওয়া যায় না।

এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও আইনজীবী মওদুদ আহমদ বলেন, খালেদার জামিনের ব্যাপারে কিছুটা বাধা আছে। যে মামলাগুলো আছে সেগুলোতে জামিন নিতে হবে। এখন দ্রুত চেষ্টা করবো আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে। তার পর তিনি আমাদের মাঝে মুক্ত হয়ে আসবেন।

Leave a Reply