বিএনপি-জামায়াত জোটই ভিসির বাসভবনে হামলা চালিয়েছে : হানিফ

সারাদেশ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে বিএনপি-জামায়ত জোটই পরিকল্পিত হামলা চালিয়েছে।

তিনি বলেন, তারেক রহমান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মামুনের টেলিফোনালাপের মধ্যদিয়ে তা প্রমাণিত হয়েছে এবং খুব দ্রুত তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।খবর বাসস

বৃহস্পতিবার বিকেলে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে জেলা পুলিশ আয়োজিত ‘স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের ঐতিহাসিক সাফল্য’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার আগে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ সব কথা বলেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান, পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান এবং সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী উপস্থিত ছিলেন।

ঢাবি ভিসির বাসায় হামলাকারীরা সবাই পেশাদার

‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ভিসির ভবনে হামলাকারীরা সবাই পেশাদার’ বলে মনে করছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

অপরাধীরা যেই হোক তাদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে পহেলা বৈশাখের নিরাপত্তা বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাবির ভিসি স্যারের বাড়িতে হামলাসহ গত তিনদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যা হয়েছে তা অনাকাঙ্ক্ষিত ও অপ্রত্যাশিত। হামলাকারীরা যেভাবে হামলা চালিয়েছে, সিসিটিভি ক্যামেরা ভেঙে, হার্ড ডিস্কের বক্স ভেঙে দিয়েছে এতে বোঝা যায় হামলাকারীরা পেশাদার।

এসময় তিনি বলেন, তবে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। এ বিষয়ে মামলা হয়েছে, মেধাবী অফিসাররা মামলার তদন্ত করছেন। প্রকৃত অপরাধীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

বাসভবনে হামলায় জড়িতদের শাস্তি পেতেই হবে: ঢাবি ভিসি

বাসভবনে হামলার সঙ্গে যারা আসলেই জড়িত ছিল, তাদেরকে শাস্তি পেতেই হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনি বলেন, তবে, মামলায় নিরীহ কোনো শিক্ষার্থীকে হয়রানি করা হবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভিসির অফিসে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মামলা করেছি। তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। এগুলো আমাদের নিয়মিত কাজ। তবে আইন নিজস্ব গতিতে চলবে। পুলিশ তাদের কাজ করবে। যারা জড়িত তাদের শাস্তি পেতেই হবে। কেউ রেহাই পাবে না।

সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে ভিসি আরো বলেন, আমি বিশ্বাস করি না, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী এই হামলার সাথে জড়িত থাকতে পারে। তবে যদি সত্যিই কেউ জড়িত থাকে তাহলে তো আমাদের জন্য লজ্জার। জড়িত থাকলে তাদেরকেও শাস্তি পেতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ছাত্র যদি আসলেই জড়িত থাকে তাহলে এটা জাতির জন্য লজ্জার।

ভিসি আরো বলেন, আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বলেছি, নিরীহ কোনা শিক্ষার্থীকে যেন হয়রানি করা না হয়। সন্দেহ করে কাউকে যেন হয়রানি করা না হয়। তদন্ত করে সত্যিই যারা জড়িত তাদেরকেই কেবল শাস্তির আওতায় আনতে হবে। সন্দেহের কোনো সুযোগ নেই।

এ সময় ভিসি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের কোনো ধরনের গুজবে কান না দেয়ার আহ্বান জানান।

এর আগে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাদের আন্দোলন স্থগিত ঘোষণা করেন। গতকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে বলেন, কোটা ব্যবস্থা বাতিল করা হবে। তার ওই ঘোষণার পরই বৃহস্পতিবার শিক্ষার্থীরা পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন স্থগিত করেন।

শিক্ষার্থীদের দাবির অন্যতম বিষয় ছিল যাতে মামলার নামে সাধারণ শিক্ষার্থীদের হয়রানি না করা হয়। আর যদি তা করা হয়, তাহলে আবারো আন্দোলনের হুমকি দেন তারা।

প্রসঙ্গত, কোটা সংস্কারের দাবিতে দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে জানান, কোটা ব্যবস্থাই বাতিল করা হবে।

তিনি বলেন, যেহেতু সবাই কোটা প্রথা চাচ্ছে না, লেখপড়া বাদ দিয়ে আন্দোলন করছে, সেহেতু আর সংস্কার কী, কোটা প্রথাই বাতিল করা হবে।

Leave a Reply