সাংবাদিক-সুধীজনদের মিলনমেলায় শেষ হলো ইমজার যুগপূর্তি উৎসব

সিলেট বিভাগ

সিলেটের নানা শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিদের মিলনমেলার মাধ্যমে শেষ হলো ইমজা’র যুগপূর্তি উৎসবের তিন দিনের আয়োজন। শনিবার শেষ দিনে দিনব্যাপী আয়োজনে অংশ নিয়ে বিশিষ্টজনেরা ইমজাকে সিলেটের সাংবাদিকদের ঐক্যেও প্রতীক উল্লেখ কওে আগামীতে ইমজার কার্যক্রমে সর্বাত্মক সহযোগীতার আশ্বাস প্রদান করেন। একইসঙ্গে যুগপূর্তিতে ইমজা’র এই বর্ণিল ও বিশাল আয়োজনের  প্রশংসা করেন সবাই।

যুগপূর্তি অনুষ্ঠান ‘অর্জন’র শেষ দিনের আয়োজনে প্রথম পর্বে সিলেটের প্রবীণ বাউল শিল্পী আব্দুর রহমানকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে সাথে নিয়ে আবদুর রহমানের হাতে সম্মাননা স্মারক ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন ইমজার সভাপতি আশরাফুল কবীর, সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দেবু, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আল আজাদ, যুগপূর্তি উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক আবদুল আলীম শাহ, সদস্য সচিব মঞ্জুর আহমদ ও সম্মাননা কমিটির আহ্বায়ক আজিজ আহমদ সেলিম। এর আগে বাউলশিল্পী আবদুর রহমানকে নিয়ে সম্মাননা পত্র পাঠ করেন গোলজার আহমদ।

এছাড়া সম্মাননা প্রদান করা হয় ইমজার দাতা সদস্যদের। শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান করা হয় সিলেট ক্যাবল সিস্টেম লিমিটেডকে এবং কৃতজ্ঞতা স্মারক প্রদান করা হয় ১২ বছরে ইমজার সকল সভাপতি- সাধারণ সম্পাদককে।

সকালে নগরীর একটি হোটেলের কনফারেন্স হলে ছন্দ নৃত্যালয়ের নৃত্যের মাধ্যমে যুগপূর্তি অনুষ্ঠানের শেষ দিনের প্রথম পর্ব শুরু হয়। এরপরে মেয়রসহ অন্যান্য অতিথিদের নিয়ে কেক কাটেন ইমজার নেতৃবৃন্দ।

সকাল ও সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত দুটি সুধী সমাবেশে ইমজাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও লেখক-শিক্ষাবিদরা। বিকেলে ইমজা’র যুগপূর্তি উপলক্ষ্যে প্রকাশিত প্রকাশনা অর্জন’র মোড়ক উন্মোচন করেন প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারা।

সুধী সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েস, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, প্রবীণ রাজনীতিবিদ বেদানন্দ ভট্টাচার্য্য, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, মদনমোহন কলেজের অধ্যক্ষ আবুল ফহেত ফাত্তাহ, দৈনিক উত্তরপূর্বের প্রধান সম্পাদক আজিজ আহমদ সেলিম, সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আহমেদ নুর, দৈনিক শুভ প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রকাশক সারওয়ার হোসেন, ব্লাস্টের সমন্বয়ক ইরফানুজ্জামান চৌধুরী, জেলা ওর্য়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক সিকান্দার আলী, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান চৌধুরী, রাজনীতিবিদ কাইয়ুম চৌধুরী, কবি ও গবেষক মোস্তাক আহমদ দীন, সমাজসেবা অধিদপ্তর সিলেটের উপ-পরিচালক নিবাস রঞ্জন দাস, সিলেট ক্যাবল সিস্টেমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জুনেল আহমদ, নাট্যব্যক্তিত্ব নিরঞ্জন দে, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম সেলিম, রাজনীবিদ ও সমাজসেবক খোকন চৌধুরী, সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর আবদুর রকিব তুহিন, স্থপতি রাজন দাস, বাপা সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম কীম, আওয়ামী লীগ নেতা জগলু চৌধুরী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, রিফাত এন্ড কোংয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ সিদ্দীকি শুভ, মদনমোহন কলেজের শিক্ষক মিহির কান্তি দাস, স্থপতি জুলফিকার রহমান, সিলেট প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি এমএ হান্নান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর, বাংলাদেশ প্রতিদিন ও নিউজটোয়েন্টিফোরের সিলেট ব্যুরো প্রধান শাহ দিদার আলম নবেল, সিলেট প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ শাহাব উদ্দিন শিহাব, দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকার প্রধান বার্তা সম্পাদক মুক্তাদির আহমদ মুক্তা, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সিলেট বিভাগীয় শাখার সাবেক সভাপতি শেখ আশরাফুল আলম নাসির, টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন সিলেটের সাবেক সভাপতি এস. সুটন সিংহ, ক্রীড়া লেখক সমিতির সাবেক সভাপতি মান্না চৌধুরী, মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সালেহ এলাহী কুটি, মৌলভীবাজার ইমজার সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্ত, একাত্তর টিভির সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি শামস শামীম, মাছরাঙা টেলিভিশনের সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি এমরানুল হক চৌধুরী, দক্ষিণ সুরমা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গির আলম মুসিক।

বিকেলে বিশেষ প্রকাশনা অর্জন’র মোড়ক উন্মোচন করেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মো. কামরুল আহসান, জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম, মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব।

অনুষ্ঠানে কৃতজ্ঞতা স্মারক প্রদান করা হয় ইমজার সাবেক সভাপতি আল আজাদ, মইনুল হক বুলবুল, বাপ্পা ঘোষ চৌধুরী, সংগ্রাম সিংহ, মাহবুবুর রহমান রিপন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন মনজু, শাহাব উদ্দিন শিহাব, লিটন চৌধুরী, আব্দুল আলিম শাহ, আনিস রহমান, সজল ছত্রী এবং বর্তমান সভাপতি আশরাফুল কবির ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দেবুকে। এছাড়া যুর্গপূতি উদযাপন কমিাটির আহ্বায়ক আব্দুল আলিম শাহ ও সদস্য সচিব মঞ্জুর আহমদকেও কৃতজ্ঞতা স্মারক প্রদান করা হয়।

ইমজা সভাপতি আশরাফুল কবির ও সম্মাননা উপ কমিটির আহ্বায়ক আজিজ আহমদ সেলিম এসব স্মারক প্রদান করেন।

বিকেলে ইমজার সদস্যদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ‘সুহৃদ বন্ধন’-এর আয়োজন করা হয়। এসংক্রান্ত উপকমিটির আহ্বায়ক মঈন উদ্দিন মনজুর সঞ্চালনায় পরিবারের সদস্যরা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও আনন্দ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। রাতে সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। গোলজার আহমদ ও প্রত্যুষ তালুকদারের সঞ্চালনায় এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন চিশতি বাউল, বাউল আব্দুর রহমান, শামীম আহমদ, তন্বী দেব, জয় সরকার, মৌমিতা সিনহা ও নগরনাট।

আবৃত্তি পরিবেশন করেন বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য মোকাদ্দেস বাবুল ও মৃত্তিকায় মহাকাল। নৃত্য পরিবেশন করে- মণিপুরী কালচারাল একাডেমি।

Leave a Reply