‘গোপনীয় তথ্য গণমাধ্যমে আসার বিষয়ে কর্মকর্তাদের সতর্ক’

জাতীয়

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গোপনীয় তথ্য গণমাধ্যমে আসার বিষয়ে কর্মকর্তাদের সতর্ক করেছেন সংস্থার চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার সংস্থান প্রধান কার্যালয়ে এক জরুরি সভায় গোপনীয় তথ্য কোনোক্রমেই যেন ফাঁস না হয়, সে জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব ভট্টাচার্যের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, সভায় দুদক চেয়ারম্যান কর্মকর্তাদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশ দিয়ে বলেন, কমিশন কারও ব্যক্তিগত দায়িত্বহীনতার দায় গ্রহণ করবে না।

সভায় ইকবাল মাহমুদ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য যেসব সংস্থায় চিঠি দেওয়া হয়েছে, তাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগের নির্দেশ দেন। কমিশনের নাম ভাঙিয়ে প্রতারক চক্র কমিশনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্নের অপচেষ্টা করছে। তাই এদের আইনের আওতায় আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাতে হবে।

সম্প্রতি দুদক কর্মকর্ত-কর্মচারী পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোন, টেলিফোন বা ই-মেইলে কমিশনের লোগো ব্যবহার করে ভুয়া নোটিশ বা চিঠির মাধ্যমে বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার ব্যক্তিদের কাল্পনিক অভিযোগ কিংবা কমিশনের বিবেচনাধীন রয়েছে, এমন অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে একাধিক প্রতারক চক্র ভয়-ভীতি দেখিয়ে অনৈতিক আর্থিক সুবিধা দাবি করছে। কমিশনের নজরে আসায় বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয়েছে দুদক। এরই ধারাবাহিকতায় ওই বৈঠক হয়।

Leave a Reply