ঢাকা-সিলেট-শিলং-গুয়াহাটি বাস চলাচল শুরু

সিলেট বিভাগ

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বাস সার্ভিস চালু হয়েছে। ঢাকা থেকে বাসটি সিলেট হয়ে মেঘালয়ের রাজধানী শিলং হয়ে সরাসরি আসামের রাজধানী গুয়াহাটি যাবে।

এর আগে পরীক্ষামূলকভাবে চললেও এখন থেকে নিয়মিত প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে শিলং-এর উদ্দেশে বাস ছাড়বে। একইভাবে প্রতি সপ্তাহের সোমবার ঢাকার উদ্দেশে শিলং পুলিশ বাজার থেকে বাসটি ছেড়ে আসবে।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাসটি সিলেটের তামাবিল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের মেঘালয় রাজ্যে প্রবেশ করে। এর আগে বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টায় ঢাকার কমলাপুর থেকে রওনা দেয় বাসটি।

দুই দেশের মধ্যে সরকারিভাবে চুক্তির মাধ্যমে এ বাস চলাচল শুরু হয়েছে। শ্যামলী এনআর ট্রাভেলস অপারেটর হিসেবে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষে নির্বাচিত হয়েছে।

এই রুট ছাড়াও ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা, ঢাকা-খুলনা-কলকাতা, আগরতলা-ঢাকা, কলকাতা-আগরতলা রুটের জন্যও বিআরটিসি শ্যামলী এনআর ট্রাভেলসকে অপারেটর হিসেবে নিযুক্ত করেছে।

ঢাকা-সিলেট-শিলং-গুয়াহাটি রুটে এ বাসের ভাড়া আসা যাওয়া ৫ হাজার টাকা। ভিসা ফি আরও ৬০০ টাকা। ই-টোকেনের ঝামেলা ছাড়াই শ্যামলী এনআর কর্তৃপক্ষ ভিসার ব্যবস্থা করে দেবে।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় কমলাপুর বিআরটিসি আন্তর্জাতিক টার্মিনাল থেকে বাসটি ছেড়ে যাবে। বাসটি শুক্রবার সকাল ১১টায় পৌঁছাবে শিলং পুলিশ বাজার।

শিলংয়ে বিভিন্ন স্পটে ভ্রমণের প্যাকেজও শিগগিরই অন্তর্ভুক্ত করবে কর্তৃপক্ষ।

শ্যামলী এনআর ট্রাভেলস-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর শুভংকর ঘোষ রাকেশ বাংলানিউজকে জানান, বাস চালুর মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে পর্যটন সম্ভাবনা বেড়েছে। ঢাকা থেকে অল্প খরচেই প্রাচ্যের স্কটল্যান্ডখ্যাত শিলংয়ে বেড়াতে যেতে পারবেন ভ্রমণপিপাসুরা।

এতে দু’ দেশের সম্প্রীতি ও বন্ধত্বপূর্ণ সম্পর্ক তাতে বাড়লো- বলেন রাকেশ ঘোষ।

২৮ সিটের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এ বিশেষ বাস পাহাড় বেয়ে উঠার উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে। ডাউকি ঝুলন্ত সেতু পেরিয়ে বাসটি উচ্চতায় উঠে এরপর মেঘে মেঘে পাড়ি জমাবে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি মেঘালয়ে।

ঢাকায় এ বাসের টিকিট পাওয়া যাবে কমলাপুর আন্তর্জাতিক বাস টার্মিনাল কাউন্টার ও ২৫/১- বি খিলজী রোড, শ্যামলী, মোহাম্মদপুর থেকে। এছাড়াও ঢাকার ভেতরে শ্যামলী এনআর ট্রাভেলস-এর ৬০টি বুকিং অফিস থেকে টিকিট পাওয়া যাবে।

Leave a Reply