খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ

প্রবাস

বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবীতে লন্ডনে বৃটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যুক্তরাজ্য বিএনপি। এতে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শহর থেকে শত শত নেতাকর্মী অংশ নেয়।

যুক্তরাজ্য বিএনপি সভাপতি এম এ মালিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদ এর পরিচালনায় বিকাল ২ টা থেকে ৪টা পর্যন্ত অনুস্টিত বিক্ষোভ সমাবেশে যুক্তরাজ্য বিভিন্ন শহর হতে শত শত প্রবাসী বাংলাদেশীসহ বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীগণ বিভিন্ন ধরনের প্লেকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে যোগ দিয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানান। মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে যুক্তরাজ্য বিএনপি সভাপতি এম এ মালিকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমেদের নেতৃত্বে যুক্তরাজ্য বিএনপির পক্ষ থেকে বিএনপির চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির জন্য বৃটিশ সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়।

মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে এক সংক্ষিপ্ত বক্তবে বক্তারা বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জাতীয় নির্বাচন প্রক্রিয়া থেকে দূরে রাখতে অবৈধ হাসিনা সরকার রাজনৈতিক মামলাকে হাতিয়ার হিসাবে অব্যাহত ব্যবহার করছে। প্রহসনের রায়ের সার্টিফাইড কপি প্রদানে বাধা সৃষ্টি করে বেগম খালেদা জিয়ার জামিন প্রক্রিয়ায় বাধা দিচ্ছে। সরকার বিচার ব্যবস্থার উপর হস্তক্ষেপ করে নিজে আদালতের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলার মাধ্যমে অবৈধ সরকার বিরোধী দলের কণ্ঠ স্তব্দ করে দেশে একদলীয় শাসন বাকশাল কায়েমের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।
বক্তারা বলেন, ১/১১ সরকারের সময় অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও ট্রাস্ট মামলা সহ ১৪টি দুর্নীতির মামলা দেশের কোন আইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে দেশবাসী তা জানতে চায়। জনগণ জানতে চায় এক দেশে দুই আইন কেন?
তারা বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জেল জুলুমের ভয় ভীতি দেখিয়ে বিচলিত করা যাবে না। দেশনেত্রীর শক্তি জনগণের শক্তি, বিএনপি জনগণকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে আওয়ামী বাকশালীদের সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে প্রস্তুত। দেশে ও প্রবাসের জনগন দূর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে মুক্ত জনগনে মধ্যে শীঘ্রই ফিরিয়ে আনবে।
অবৈধ সরকারের বিদায় ঘন্টা বেজে যাওয়ায় তাদের সাজানো মসনদে ভূমিকম্প শুরু হয়েছে। বক্তারা বলেন, অবৈধ সরকার অভিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও দেশনায়ক তারেক রহমানের উপর থেকে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং সুদূরপ্রসারী ষড়যন্ত্রমূলক হয়রানির পরিকল্পনা বন্ধ না করলে তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে প্রস্তুত যুক্তরাজ্য বিএনপি।

মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক প্রধান উপদেষ্টা শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুছ, সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সাবেক সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সহসভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব, সাবেক সহসভাপতি প্রফেসর এম ফরিদ উদ্দিন, গোলাম রাব্বানী সোহেল, সাবেক উপদেষ্টা সলিসিটর একরামুল হক মজুমদার, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি পারভেজ মল্লিক, সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মামুন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, নাসিম আহমেদ চৌধুরি, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক সিনিয়র সদস্য আলহাজ্ব সাদিক মিয়া, বিএনপি নেতা আতিকুর রহমান চৌধুরী পাপ্পু ,মিসবাউজ্জামান সোহেল, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আলম, আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম আহমেদ, খসরুজ্জামান খসরু, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক কে আর জসিম, মোশাহিদ আলী তালুকদার, কোষাধক্ষ আব্দুস ছাত্তার, সাবেক দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান জাহিদ, কেন্দ্রীয় যুবদলের সাবেক সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এনামুল হক লিটন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক যুববিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ খান হেভেন, সাবেক ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক আবু নাসের শেখ, সাবেক সহ-দফতর সম্পাদক সেলিম আহমান, সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ গাজী, সাবেক সদস্য কামাল চৌধুরী, গুলযার আহমেদ, আব্দুল বাসিত বাদশা, সোহেল আহমেদ, সোহেল আহমেদ, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম রিবলু, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম বাদল, সাধারণ সম্পাদক এস এম লিটন, সেন্ট্রাল লন্ডন বিএনপির সভাপতি আব্দুস সামাদ, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ,লন্ডন নর্থ ওয়েস্ট বিএনপির সভাপতি হাজী এম এ সেলিম, , কেমডেন এন্ড ওয়েস্ট মিনিস্টার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পারভেজ কবির, সাউথ ইস্ট বিএনপির সভাপতি সালেহ আহমেদ জিলান, সাসেক্স বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, মিল্টন কিংস বিএনপির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ সাহেল, কার্ডিফ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল কেন্ট বিএনপির সাধারন সম্পাদক রুহুল ইসলাম রুলু,, ইসলাম, শেফিল্ড বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মিসবা চৌধুরী, কেমডেন এন্ডওয়েস্ট মিনিস্টার বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম সাইফুল শিপু, কেম্ব্রিজ বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মনোয়ার আলী, যুক্তরাজ্য বিএনপিনেতা আসসাদুজ্জামান আহমেদ, তোফায়েল বাসিত তপু, নাজমুল হোসেন চৌধুরী, মাওলানা শামিম আহমেদ, আহসানুল আম্বিয়া সুমন, লন্ডন মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কুদ্দস, সায়েদ উদ্দিন চৌধুরী, শরীফ উদ্দিন ভুইয়া বাবু, আব্দুল রব, কদর উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ চৌধুরী, যুগ্ম-সম্পাদক ফয়সল আহমেদ, আবু তাহের, রোমান আহমদ চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান সাকিব ,মাহবুব হাসান সাকিব, তোফায়েল হোসেন মৃধা, কাওছার আহমেদ, আবু তাহের , নজরুল ইসলাম খান, মোঃ জিয়াউর রহমান, মো: মঈনুল ইসলাম, সেলিম মাহমুদ, মোঃ মাকসুদুল হক, মোঃ রবিউল আলম, দেওয়ান মইনুল হক উজ্জ্বল, মিলাদ হসেন রুবেল, কামরুন্নহার সাহানা, আসমা জামান, আবু নোমান, মিছবাহ উদ্দিন , শাকিল আহমদ, ইমরান হোসেন, মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ, জামাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মোঃ ফরিদউল্লাহ মুন্সী, আরিফুল হক, আব্দুস সামাদ রাজ, যুবদলের সভাপতি রহিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র সহসভাপতি ব্যারিস্টার আবু ইলিয়াছ, যুগ্ম-সম্পাদক সলিসিটির নাসের খান অপু, যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হক রাজ, দেওয়ান আব্দুল বাসিত, সুরমান খান, যুগ্ম সম্পাদক বাবর চৌধুরী, সুয়েদুল হাসান, সাহেল শাহ, মোশারফ হোসেন, ,মনোয়ার হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিন, সিনিয়র সহসভাপতি মিসবা বি এস চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন, জাসাস সভাপতি এমাদুর রহমান এমাদ, সিনিয়র সহসভাপতি তরিকুর রশিদ চৌধুরী শওকত, সাধারণ সম্পাদক তাজবির চৌধুরী শিমুল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি শরিফুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য জাসাসের সহ-সভাপতি সুনিয়া তাসনিম, আতাউর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি ডালিয়া লাকুরিয়া, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম শিমু, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান, জাহিদুর রহমান, জাসাসের যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাবলু, আব্দুল মোতালিব লিটন, মাহফুজুর রহমান, ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম মিরাজ, ইমতিয়াজ এনাম তানিম, মাহবুবুর রহমান, মোঃ মাসুদুজ্জামান, ফুয়াদ আহমেদ, মনির আহমেদ, ফজলে রহমান পিনাক প্রমুখ।

Leave a Reply