তুরস্কের অধিকার নিয়ে কারো আগ্রাসী আচরণ মেনে নেয়া হবে না : এরদোগান

আন্তর্জাতিক

আঙ্কারা : পূর্ব ভূমধ্যসাগরে গ্যাস অনুসন্ধানে তুরস্কের অধিকার লঙ্ঘন ও আগ্রাসী আচরণ না করার জন্য গ্রিস, সাইপ্রাস ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে সতর্ক করে দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

মঙ্গলবার আঙ্কারায় ক্ষমতাসীন দলের এমপিদের উদ্দেশ্য দেয়া এই বক্তৃতায় এরদোগান এই সতর্ক বার্তা উচ্চারণ করেন।

এদিকে, গ্রিস কর্তৃপক্ষ বলছে, ইজিয়ান সাগরের জনবসতিহীন একটি ক্ষুদ্র দ্বীপের কাছে তুরস্কের কোস্ট গার্ডের একটি জাহাজের ধাক্কায় তাদের কোস্ট গার্ডের জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ইজিয়ানের ক্ষুদ্র দ্বীপগুলো নিয়ে ন্যাটো জোটের এই দুই সদস্য রাষ্ট্র ১৯৯৬ সালে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছিল।

তুর্কি যুদ্ধ জাহাজগুলো অব্যাহতভাবে সাইপ্রাসের অবস্থানের দিকে গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য খনন কাজে বাধা প্রদান করছে। এই খনন কাজের জন্য সেখানে ইটালিয়ান জ্বালানি সংস্থা ‘এনি’ নিয়োজিত রয়েছে।

অন্যদিকে, তুরস্ক খনন কাজের বিরোধিতা করে বলছে যে, এটি তুর্কের অধিকারকে উপেক্ষা করা হবে। অন্যদিকে, সাইপ্রাস সরকার বলছে যে খনন করার জন্য তাদের সার্বভৌম অধিকার রয়েছে এবং অনুসন্ধানটি যদি সফল হয় তবে দ্বীপটি পুনর্বিন্যস্ত করা হলে যে কোনো আয় সমানভাবে ভাগ করে নেওয়া হবে।

এদিকে, সোমবার এক বিবৃতিতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন তার সদস্য রাষ্ট্রগুলোর অঞ্চলগুলোকে সম্মান দেখানোর জন্য এবং উত্তেজনা এড়ানোর জন্য তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানায়।

১৯৭৪ সালে সাইপ্রাস তুরস্ক থেকে বিভক্ত হয়ে যায় এবং ২০০৪ সালে ইইউতে যোগদান করে। তবে, এর দক্ষিণ অংশই কেবল ইইউ’র পূর্ণ সদস্যপদের সুবিধা ভোগ করছে।

এরদোগান বলেন, ‘সাইপ্রাসের গ্যাস অনুসন্ধানের সুবিধাবাদী প্রচেষ্টা এবং ইজিয়ানের ক্ষুদ্র দ্বীপগুলোর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট পদক্ষেপের বিষয়ে আমাদের দৃষ্টি অব্যাহত থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘সাইপ্রাস ও ইজিয়ানে ভুল ধারনার সঙ্গে যারা অবাধ্য আচরনের চেষ্টা করছেন আমরা তাদের সতর্ক করছি।’

গ্রিস কোস্ট গার্ড জানিয়েছে, সোমবার মধ্যরাতের ওই সংঘর্ষে কেউ আহত হয় নি। তবে, তুর্কি জাহাজের ধাক্কায় গ্রিক জাহাজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই ঘটনার সুনির্দিষ্ট কারণ এখনো স্পষ্ট নয় বলে জানানো হয়েছে।

Leave a Reply