বিএনপি’র সবাই সন্ত্রাস করে না : কামরুল

রাজনীতি

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য এবং খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি’র সবাই সন্ত্রাস করে না। সরকার আপনাদের দল ভাঙবে না। আপনাদের দল ভাঙার দরকার সরকারের নেই। কোন রকম পদক্ষেপ চালাতে হবে না।

তিনি আরো বলেন কিন্তু আপনাদের পদক্ষেপগুলো দল ভাঙ্গার জন্য যথেষ্ট। এক দুর্নীতিবাজ জেলে আর আরেক দুর্নীতিবাজকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন বানিয়ে দল ভাঙার পার্থক্যটা আপনারা পুঁতে দিয়েছেন। এটা দেখার বিষয় কতদিন পর আপনাদের দল ভাঙে। দেশের জনগণ অপেক্ষায় আছে আপনাদের দল ভাঙন দেখার জন্য।

একজন ফেরারি আসামির নেতৃত্বে আপনাদের বর্ষিয়ান যেসব নেতা আছে, বিবেকবান যেসব নেতা আছে তারা কখনো থাকতে পারে না। বিবেকবান, দুর্নীতিমুক্ত, সন্ত্রাসকে যারা ঘৃণা করে, বিএনপিতে সবাই সন্ত্রাস করে না সেই নেতারা কোন অবস্থাতেই চুপ করে বসে থাকবে না। তাদের পদক্ষেপ তারা নিবেই। এটা সময়ের ব্যাপার মাত্র। সরকার আপনাদের দল ভাঙবে না।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তৃতীয় তলার কনফারেন্স রুমে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়াকে বাহিরে রেখে নির্বাচন করতে চাই না। দেশে যতগুলো নিবন্ধিত দল আছে তারা সবাই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে এটা আমরা চাই। তবে সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কোন রকমেই সহায়ক সরকার, তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসবেন না।

কামরুল ইসলাম বলেন, খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবে কি না সেটা আমাদের দেখার বিষয় না। সেটা জানে হাইকোর্ট, নির্বাচন কমিশন।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী এই সদস্য বলেন, আপনারা মোটামুটি ভাবে এখনো শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রেখেছেন। তার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাই। কিন্তু কতদিন এই পরিস্থিতি বজায় রাখবেন সেটা দেখার বিষয়।

কামরুল হলেন, আগামী নির্বাচনের জন্য আপনারা (বিএনপি) প্রস্ততি নেন। সেটা খালেদা জিয়াকেসহই হোক আর খালেদা জিয়াকে বাদে হোক। আমরা চাই সবাই নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করুক। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হোক। সকলের কাছে গ্রহণ যোগ্য নির্বাচন হোক। আপনারা যদি নির্বাচন বানচাল করতে চান তাহলে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।

বঙ্গবন্ধু সংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী সামসুল হক টুকু সহ আরো অনেকে এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply