ঢাকাকে হারিয়ে বিপিএল চ্যাম্পিয়ন রংপুর

খেলার খবর

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ফাইনাল ম্যাচে সাকিব-আফ্রিদির ঢাকা ডায়নামাইটসকে ৫৭ রানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে গেইল-মাশরাফির রংপুর রাইডার্স।

এর আগে ফাইনাল ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ২০৭ রানের টার্গেট দিয়েছিল রংপুর রাইডার্স। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচে রংপুর রাইডার্স নির্ধারিত ২০ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ২০৬ রান করেছিল।

এর মধ্যে গেইল ৬৯ বলে ১৪৬ রান করে রেকর্ড গড়েছেন। বিপিএলের এই আসরে এটি তার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। বিপিএলের ইতিহাসে নিজের সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড ভেঙে ৬৯ বলে ১৪৬ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন গেইল। স্ট্রাইক রেট ২১১.৫৯। তাতে ছিল ৫টি চার ও ১৮টি ছক্কার মার। শতক পূরণ করেন মাত্র ৫৭ বলে।

টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ফিরতি ক্যাচ নিয়ে আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান জনসন চার্লসকে (৩) সাজঘরে পাঠান ঢাকা দলপতি সাকিব অাল হাসান। এই একটি মাত্র উইকেটের বেশি নিতে পারেনি ঢাকা ডায়নামাইটস।

প্রথম কয়েকটা ওভার দেখে শুনে খেলেন গেইল ও ম্যাককালাম। প্রথম ৫ ওভারে রংপুর তোলে ২২ রান। ষষ্ঠ ওভারে হাত খোলেন গেইল। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ওভারে তিনটি ছয় মারেন গেইল ও ম্যাককালাম। এরপর আর থামেননি এই দুজন। একাদশতম ওভারে অর্ধশতক পূর্ণ করেন গেইল। ৩৩ বল ব্যবহার করে গেইল হাফ সেঞ্চুরি করেন। এরপর চার-ছয়ের ঝড় তুলে ১৭তম ওভারে বিপিএলের পঞ্চম শতক তুলে নেন তিনি।

অন্যপ্রান্ত হাফ সেঞ্চুরি করেন ম্যাককালাম। ৪৩ বলে ৫১ রান করে অপরাজিত থাকেন এই কিউই ব্যাটসম্যান। ম্যাককালাম দেখে শুনে খেললেও গেইল ছিলেন অতিমাত্রায় আগ্রাসি। এই অতিপ্রাকৃত ইনিংসে ১৮টি ছয় মারেন তিনি। ৬৯ বলে ১৪৬ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন এই ক্যারিবীয় জায়ান্ট। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে মাত্র এক উইকেটে ২০৬ রান করে রংপুর রাইডার্স।

প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল ঢাকা ডায়নাইটস। আর এলিমিনেটর ম্যাচে খুলনা টাইটান্স ও দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে রংপুর রাইডার্স।

ঢাকা এবারসহ চতুর্থবারের মতো ফাইনালে অংশ নিয়েছে। এর আগে তারা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হয়। অন্যদিকে, রংপুর রাইডার্স এবার প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

রংপুর রাইডার্স একাদশ: জনসন চার্লস, ক্রিস গেইল, ব্রেন্ডন ম্যাককলাম, রবি বোপারা, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মোহাম্মদ মিথুন (উইকেটরক্ষক), নাহিদুল ইসলাম, সোহাগ গাজী, রুবেল হোসেন, নাজমুল ইসলাম, ইসুরু উদানা।

ঢাকা ডায়নামাইটস একাদশ: মেহেদী মারুফ, এভিন লিউইস, জো ডেনলি, কাইরন পোলার্ড, সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), শহীদ আফ্রিদি, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সুনিল নারিন, জহুরুল ইসলাম (উইকেটরক্ষক), আবু হায়দার রনি, খালেদ আহমেদ।

Leave a Reply