বিএনপি যত কথা বলুক না কেন তারা নির্বাচনে অংশ নেবে : তোফায়েল আহমেদ

রাজনীতি

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, নির্বাচনকালীন সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারই অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের দায়িত্ব পালন করবে।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি যত কথা বলুক না কেন তারা আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। নির্বাচনে না আসলে তাদের করুন অবস্থা হবে’।

মন্ত্রী শুক্রবার বেলা ১১টায় সদর উপজেলার ভেলুমিয়া ইউনিয়নে প্রায় ৬ কিলোমিটার এলাকায় নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। ৭৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই বিদ্যুৎ লাইন থেকে ৩১৭টি পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়। খবর বাসসের।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে। অর্থনৈতিকভাবে আমরা অন্যান্য যেকোন সময়ের চেয়ে অনেক মজবুত’।

সরকার দেশের গ্রামগুলোর উন্নয়নে কাজ করছে উল্লেখ করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, আজকে গ্রামগুলোর রাস্তা পাকা ও ঘরে-ঘরে বিদ্যুৎ রয়েছে। মানুষের হাতে-হাতে মোবাইল ফোন। মানুষের জীবনমান উন্নত হয়েছে।

বিএনপির সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, বিএনপি অনেকবার ক্ষমতায় ছিলো। কিন্তু দেশের কোন উন্নয়ন করতে পারেনি। আওয়ামী লীগ ৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন রেখে গিয়েছিলো। বিএনপি ক্ষমতায় এসে সেটাকে কমিয়ে ৩ হাজারে করেছে। ২০২১ সাল নাগাদ দেশে ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদুৎ উৎপাদন হবে বলে মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ‘ভোলাকে নদী ভাঙ্গন থেকে রক্ষা করতে ব্যাপক কাজ হচ্ছে। ভোলা-বরিশাল সেতু নির্মাণেরও সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে। এছাড়া সদরের বাংলাবাজার এলাকায় ২শ’ শয্যার আজাহার-ফাতেমা খানম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে’।

এ সময় মন্ত্রী যেসব বসতবাড়িতে এখোনো বিদ্যুৎ সংযোগ যায়নি, শিগগিরই সেগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

ভেলুমিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সালাম মাস্টারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম কেফায়েত উল্লাহ, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোশারেফ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নজরুল ইসলাম গোলদার প্রমুখ।

যে কারণে বঙ্গবন্ধু দিবসের অ্যাওয়ার্ড তোফায়েল আহমেদকে
বঙ্গবন্ধু দিবস উপলক্ষে ঢাকা ইউনিভার্সিটি এলামনাই নিউজ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে ইতিহাসের কিংবদন্তী ও ডাকসু’র সাবেক ভিপি বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদকে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কার্যালয়ে ঢাকা ইউনিভার্সিটি এলামনাই নিউজের সম্পাদক আলী নিয়ামত মন্ত্রীকে এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন।

এসময় বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ওয়ার্ল্ড ইউনিভাসির্টির উপাচার্য প্রফেসর ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, দৈনিক উন্নয়ন বার্তার সম্পাদক শেখ মঞ্জুর বারী মঞ্জু, জিটিএস গ্রুপের এমডি আব্দুল হালিম মৃধা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এ সময় তার প্রতিক্রিয়ায় ব্যক্ত করে বলেন, ঢাকা ইউনিভার্সিটি এলামনাই নিউজের এই উদ্যোগ ও কার্যক্রম একটি ভাল কাজ। এই ধরনের উদ্যোগের সাথে আমি সবসময় আছি।

উল্লেখ্য, ১৯৬৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি বর্তমানের সোহরোওয়ার্দী উদ্যানে (সাবেক ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দান) ১০ লাখ ছাত্র-জনতার উপস্থিতিতে অবিসংবাদিত জননেতা শেখ মুজিবুর রহমানকে বঙ্গবন্ধু উপাধি দেন বর্তমান বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

এ প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ আরো বলেন, পৃথিবীতে আজ পর্যন্ত কোনো দেশের কোনো নেতাকেই এভাবে আনুষ্ঠানিকভাবে লাখ লাখ জনতার সামনে উপাধি প্রদান করা হয়নি।

তিনি বলেন, ‘আমরাই প্রথম এ বিরল দৃশ্য এবং ইতিহাসের অংশীদার ও একই সাথে কৃতিত্বের দাবিদার। আমি একজন সক্রিয় অংশগ্রহণকারী হিসেবে আজও গর্ববোধ করি এবং এটাই আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ অর্জন বলে মনে করি।

Leave a Reply