গোয়াইনঘাটে ‘চুরির অপবাদে’ কিশোরকে নির্মম নির্যাতন : মূল হোতা আটক

সিলেট বিভাগ

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় ‘চুরির অপবাদে’ কিশোর সোহেলের(১৫) ওপর নির্মম নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা ইসবর আলীকে(৬৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় পূর্ব মানাউড়া গ্রাম থেকে গোয়াইনঘাট থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। এদিকে, এ ঘটনা তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর উত্তর) আবুল হাসনাত খানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে তিনদিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।
গোয়াইনঘাট থানার ওসি দেলওয়ার হোসেন জানান, সোহেলের ওপর নির্যাতনকারী ইসবর আলীকে সোমবার বিকালে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে। সন্ধ্যা ৬টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনি ইসবর আলীকে নিয়ে থানায় যাচ্ছিলেন।
সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(মিডিয়া) শামসুল আলম সরকার জানান, এ ঘটনা তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত খানকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন-এসবি ডিএসবি নূরুল আবসার খান ও পুলিশ পরিদর্শক(ক্রাইম) শফিকুল ইসলাম মুকুল। তাদেরকে তিন দিনের মধ্যে এ ঘটনার রিপোর্ট দাখিল করতে সিলেটের পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান শামসুল আলম।

গত ২৯ অক্টোবর সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার মানাউড়া পূর্বপাড়া গ্রামে নির্মম এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। নির্যাতনের একাধিক ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। শিশুটিকে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। নির্যাতিত কিশোরের পরিবারের অভিযোগ, নির্যাতন ঢাকতে ছেলেটির বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করেছেন পুলিশের এক সদস্য। এ ঘটনার তিনটি ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। প্রতিটি ভিডিও চিত্রই ১ মিনিট ৫৭ সেকেন্ডের। এর দুটোতে আছে কঞ্চিপেটার দৃশ্য। অপরটি কান ধরে ওঠবস করানোর।

Leave a Reply