খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে হামলা : সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

সিলেট বিভাগ

বিএনপি সিলেট জেলা ও মহানগর নেতৃবৃন্দ বলেছেন- কক্সবাজারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ শেষে ঢাকায় ফেরার পথে বিএনপি চেয়ারপার্সনের গাড়ী বহরে বোমা হামলা বাসে অগ্নি সংযোগ অবৈধ আওয়ামী বাকশালী সরকারের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্বের বহিপ্রকাশ। অবৈধ সরকার আদর্শিক মোকাবেলায় ব্যর্থ হয়ে আদালতকে ব্যবহার করে তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে দমিয়ে রাখতে চেয়েছিল। জনরোষে তাদের সে ষড়যন্ত্র নস্যাত হওয়ায় তারা কক্সবাজার যাওয়ার পথে নেত্রীর গাড়ী বহরে হামলা চালায় এসময় সাংবাদিকদের গাড়ী ভাংচুর করে। শুধু তাই নয় ঢাকা ফেরার পথেও ফেনীর মহিপালে বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে বোমা হামলা চালানো হয়, এসময় বাসেও অগ্নিসংযোগ করে তারা। সরকার তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে দেশনেত্রীর গাড়ী বহরে হামলা করে আবার উল্টো বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর ষড়যন্ত্রমুলক মামলা দায়ের করেছে। এর মাধ্যমে স্বৈরাচারী সরকার জাতির দৃষ্টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার ষড়যন্ত্র করেছে। কোন ষড়যন্ত্রই সফল হবেনা। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের আপোষহীন নেত্রীর নেতৃত্বে গোটা জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। জনতার এই ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনই এদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে বাকশালীদের কবর রচনা করবে।
বৃহস্পতিবার বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসুচীর অংশ হিসেবে রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ শেষে ঢাকায় ফেরার পথে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে বোমা হামলার প্রতিবাদে নগরীর ঐতিহাসিক রেজিষ্টারী মাঠে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি।
সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন-এর সভাপতিত্বে, জেলা বিএনপির ১ম যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল ও মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন।
বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে রেজিষ্ঠারী মাঠে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থল ত্যাগ করে।
সিলেট মহানগর বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আশরাফ আলীর কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সুচীত রেজিষ্ঠারী মাঠে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় ক্ষুদ্র ঋন বিষয়ক সহ-সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, সিলেট জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল কাহির চৌধুরী, জেলা সহ-সভাপতি এডভোকেট আশিক উদ্দিন, মহানগর সহ-সভাপতি এডভোকেট হাবিবুর রহমান, সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির শাহীন, সহ-সভাপতি জিয়াউল গনি আরেফিন জিল্লুর, জেলা যুগ্ম সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, মহানগর যুগ্ম সম্পাদক দিনার খান হাসু, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব চৌধুরী প্রমুখ।
সভাপতির বক্তব্যে নাসিম হোসাইন বলেন- আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়েই বাকশালী সরকার নেত্রীর গাড়ী বহরে বোমা হামলা চালিয়েছে। মানবতার আহŸানে সাড়া দিয়ে রোহিঙ্গা মুসলমানদের পাশে দাড়ানোর পর ঢাকায় ফেরার পথে নেত্রী গাড়ী বহরে হামলা জাতির জন্য কল্যানকর নয়। এজন্য সরকারকে কঠোর মুল্য দিতে হবে।
বিএনপির কেন্দ্রীয় ক্ষুদ্র ঋণ বিষয়ক সহ-সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বলেন- অবৈধ আওয়ামী সরকার দেউলিয়া হয়ে পড়েছে। তারা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে আছে। তারা পুনরায় সেই পথে ক্ষমতা দখল করে রাখতে চায়। জনমনে ভীতি সঞ্চার করতেই নেত্রীর গাড়ী বহরে বোমা হামলা করে আওয়ামীলীগ তাদের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে। এজন্য জনতার কাঠগড়ায় তাদেরকে জবাবদিহি করতে হবে।
মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন- তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে বোমা হামলা করে আওয়ামী অবৈধ সরকার জাতির নিকট তাদের ষড়যন্ত্র উন্মোচিত করেছে। বেগম খালেদা জিয়া ষোল কোটি মানুষের নেত্রী তাঁকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের পরিনতি ভাল হবেনা।
বদরুজ্জামান সেলিম বলেন- যে নেত্রী একটি নয় তিনটি ষড়যন্ত্রমুলক মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানা মাথায় নিয়ে স্বগৌরবে দেশে ফিরেন সেই নেত্রীর গাড়ী বহরে বোমা হামলা করে থামানো যাবেনা। দেশের আপামর জনতার ভোটাধিকার পুনরুদ্ধারের মহান দায়িত্ব নিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মাঠে নেমেছেন। তাঁকে দমানোর সাধ্য বাকশালীদের নেই। সুতরাং সময় থাকতে বাকশালীদের থামতে হবে। অন্যথায় পালানোর রাস্তাও খুজে পাবেন না।
বিক্ষোভ সমাবেশে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সহস্রাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply