সিলেট নগরীতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি

সিলেট বিভাগ

দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যে কোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে জনগণ প্রস্তুত
বিএনপি সিলেট জেলা ও মহানগর নেতৃবৃন্দ বলেছেন- গণতন্ত্রের ফিনিক্স পাখি আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবেনা। বিএনপি চেয়ারপার্সন ও ৩ বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি সরকারের বাকশালী রাজনৈতিক চরিত্রের নগ্ন বহিঃপ্রকাশ। দেশনেত্রীকে গ্রেফতারের ষড়যন্ত্র করা হলে অবৈধ সরকারকে কঠোর মুল্য দিতে হবে। আওয়ামী ফ্যাসিবাদে ধ্বংসপ্রায় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়ার মহান দায়িত্ব থেকে বেগম খালেদা জিয়াকে দমিয়ে রাখতেই কথিত মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানায় জাতি বিক্ষুব্দ। অবিলম্বে এই ষড়যন্ত্রমুলক গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যে কোন ষড়যন্ত্র রুখে দিতে দেশপ্রেমিক জনতা প্রস্তুত রয়েছে।
গতকাল বুধবার বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসুচীর অংশ হিসেবে আপোষহীন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলক মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে নগরীতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি। বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মীদের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত মিছিলটি কোর্ট পয়েন্ট থেকে শুরু হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জিন্দাবাজার পয়েন্টে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হয়। সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন।
মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, মহানগর সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা সাধারন সম্পাদক আলী আহমদ, জেলা সহ-সভাপতি একেএম তারেক কালাম, হাজী শাহাব উদ্দিন, মহানগর সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ খসরু, জেলা সহ-সভাপতি জালাল উদ্দিন চেয়ারম্যান, মহানগর সহ-সভাপতি আব্দুস ছাত্তার, বাবু নিহার রঞ্জন, জেলা উপদেষ্ঠা মাজহারুল ইসলাম ডালিম, মহানগর উপদেষ্ঠা সাইদুর রহমান বুদুরি, জেলা যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, মহানগর যুগ্ম সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী, সাবেক কাউন্সিলার মুজিবুর রহমান শওকত, জেলা যুগ্ম-সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, ময়নুল হক, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কাশেম, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মুকুল মোর্শেদ, জেলা বিএনপি নেতা কামরুল হাসান শাহীন, মহানগর দফতর সম্পাদক সৈয়দ রেজাউল করিম আলো, জেলা দফতর সম্পাদক এডভোকেট মোঃ ফখরুল হক, মহানগর প্রচার সম্পাদক শামীম মজুমদার, প্রকাশনা সম্পাদক জাকির মজুমদার, জেলা প্রকাশনা সম্পাদক এডভোকেট আল আসলাম মুমিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট মুজিবুর রহমান, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সুরমান আলী, মহানগর শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ইউনুছ মিয়া, জেলা স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক লায়েছ আহমদ, মহানগর যুব বিষয়ক সম্পাদক মির্জা বেলায়েত হোসেন লিটন ও হাবিব আহমদ চৌধুরী শিলু, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু, জেলা সমবায় বিষয়ক সম্পাদক লিলু মিয়া চেয়ারম্যান, অর্থনীতি বিষয়ক সম্পাদক মশিকুর রহমান মহি, তাতী বিষয়ক সম্পাদক ওহিদ তালুকদার, মহানগর পরিবার কল্যান বিষয়ক সম্পাদক লল্লিক আহমদ চৌধুরী, জেলা পরিবার কল্যান বিষয়ক সম্পাদক আইয়ুব আলী সজীব, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ আশরাফ আলী, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল জব্বার তুতু, মহানগর কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মন্নান পুতুল, জেলা সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান, মুরাদ হোসেন, সহ-দফতর সম্পাদক দিদার ইবনে তাহের লস্কর, সহ-যুব বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মালেক, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট তাজ উদ্দিন মাখন, সহ-ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, সহ-মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক নারায়ন পুরকায়স্থ ফনি, মহানগর সহ-প্রযুক্তি সম্পাদক শোয়েব বখত চৌধুরী ও আমিনুর রহমান খোকন, সহ-সমবায় সম্পাদক শরিফ উদ্দিন মেহেদী, সহ-যোগাযোগ সম্পাদক উজ্জল রঞ্জন চন্দ, জেলা সহ-ক্ষুদ্র ঋন সম্পাদক এনামুল হক মাক্কু, জেলা জাসাস-এর সাধারন সম্পাদক জয়নাল আহমদ রানু, মহানগর সাধারন সম্পাদক তাজ উদ্দিন মাসুম, জেলা সাংগঠনিক রায়হান হোসেন খান, মহানগর সাংগঠনিক আব্দুল্লাহ আরিফ। জেলা ও মহানগর সদস্যদের মধ্যে-সাব্বির আহমদ, জাহেদুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, বদরুল ইসলাম আজাদ, সাইদুর রহমান সাইদ, মকবুল আলী, ফয়জুর রহমান ফয়জু, মাসুদ আলী মাছুম,সাইফুল ইসলাম সাইফুল, মনিরুল ইসলাম তুরন, খসরুজ্জামান খসরু, হেলাল মিয়া, মোতাহির আলী মাখন, শামসুর রহমান, শেখ কবির, আব্দুল হান্নান, জুয়েল আহমদ জুবেল, হাসান মঈনুদ্দিন আহমদ, আব্দুস সোবহান, মাছুম আহমদ লশকর, আব্দুল মন্নান, শফিক নুর, মুজিবুর রহমান, আব্দুল মুতাকাব্বির চৌধুরী, এস কে সবুজ, দেলোয়ার হোসেন রাজন, গিয়াস আহমদ মেম্বার। বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল,আব্দুল আহাদ, শ্রমিক দল সহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্য থেকে উপস্থিত ছিলেন- আলী আকবর, জহির উদ্দিন, মঈনুদ্দিন, আলী আহমদ, আজির উদ্দিন, আজাদ মিয়া, আক্তারুল ইসলাম, ওসমান আহমদ, মোঃ আব্দুল্লাহ, আব্দুল মালেক, আতাউর রহমান রফিক, জাহাঙ্গীর আলম লকুছ, শাহ আব্দুল মুকিত, ছোরাব আলী, আশরাফ আহমদ, খলিল আহমদ, আক্কাস মিয়া, আহাদ মিয়া, আব্দুল মুহিত, আজহারুল ইসলাম সামি, কল্লোলজ্যোতি বিশ্বাস জয়,  রুবেল আহমদ, আব্দুর রহিম, খোকন ইসলাম, হাবিবুর রহমান, ছাত্রদল নেতা কাজী মেরাজ, দেওয়ান আরাফাত চৌধুরী জাকির, মুহিবুর রহমান, লিটন আহমদ, নাজিম উদ্দিন পান্না, ফখরুল ইসলাম রুমেল, বোরহান উদ্দিন রাহেল, জামাল আহমদ খান, সাজন আহমদ তালুকদার, আজিজুল হক আরজু, আব্দুল কাইয়ুম, আব্দুল মান্নান, সাদেক আহমদ, সোহেল ইবনে রাজা, দেলোয়ার হোসেন মাহদি, মাসুম পারভেজ, শাহ টিপু সুলতান, আলী আকবর রাজন, দুলাল রেজা, আবু মুন্তাসির চৌধুরী সাব্বিহ, ইশতিয়াকুর রহমান রাজু, রুম্মান আহমদ রাজু, জাবেদুর রহমান জাবেদ, শাহরিয়ার রিপন, জুনেদ আহমদ, জামাল আহমদ, ছাদিক আহমদ, শামসুদ্দিন শুভ, জামিল আহমদ জমির, আবু সালেহ, ফাহাদ আহমদ, মামুন আহমদ, সানি চৌধুরী ও আল-আমীন স্বপন প্রমুখ।

Leave a Reply