কারসাজি করে প্রধান বিচারপতিকে সরিয়ে দিয়েছে সরকার : ফখরুল

রাজনীতি

সরকার কারসাজি করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ষোড়শ সংশোধনী রায়ের পর ক্ষুব্ধ সরকার দেশে সকল প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করতে সমস্ত কাজ করছে। প্রধান বিচারপতির ছুটি সম্পর্কে গণমাধ্যমে উঠে এসেছে। এর মধ্য দিয়ে দেশের মানুষ বুঝতে পেরেছে কারসাজি করে প্রধান বিচারপতিকে সরিয়ে দিচ্ছে সরকার। তার অপরাধ একটা তিনি সত্য কথা বলেছেন, তিনি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার কাজ করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসকাব মিলনায়তনে এক স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘ঐতিহাসিক শহীদ জেহাদ দিবস’ উপলে ৯০ এর স্বৈরাচারবিরোধী ছাত্র গণঅভ্যুত্থানের বীর শহীদ নাজির উদ্দিন জেহাদের ২৭তম শাহাদতবার্ষিকীর আয়োজন করে শহীদ জেহাদ স্মৃতি পরিষদ। : মির্জা ফখরুল বলেন, ষোড়শ সংশোধনী রায়ের কিছুদিন পর প্রধান বিচারপতি এক মাসে ছুটিতে গিয়েছেন। ফিরে এসে দায়িত্বে বসতে পারলেন না। তাকে আবারও ছুটিতে যেতে বাধ্য করা হয়েছে। দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমাদের নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে, অনেক বিপদ আসবে, অনেক ত্যাগ শিকার করতে হবে। অসংখ্য মামলা দেয়া হয়েছে। আরও ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। আমাদের অনেক ভাইকে তুলে নিয়ে গেছে, আমরা ভুলে যাব না। ভবিষ্যতে বিজয় অর্জন করতে সবাইকে এক সঙ্গে এগিয়ে যেতে হবে। নিজেদের প্রত্যয়কে শক্তিশালী করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা অশক্তিকে পরাজিত করার অঙ্গীকার করতে হবে। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, ওরা জানে নিরপে সরকারের অধীনে যদি নির্বাচন হয়, বাংলাদেশের মানুষ ভোট দিতে পারে তাহলে তারা মতায় আসতে পারবে না। তাই সেভাবে নির্বাচন দিতে চায় না। তারা ফুটবল খেলার মতো খালি মাঠে ডিব্লিং করে গোল দিতে চায়। : তিনি বলেন, আমাদেরকে সরকারের ভয়াবহ নীলনকশা নস্যাৎ করে নিরপে নির্বাচন নিশ্চিত করতে হবে। কেউ এসে আমাদের জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করে দিয়ে যাবে না। আমাদেরকেই অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাই কোথায় সমস্যা তা চিহ্নিত করে জনগণের কাছে যেতে হবে। শুধুমাত্র প্রেসকাবের আলোচনার মধ্যে সীমাবদ্ধ না থেকে তরুণ সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করতে কাজ করে যেতে হবে। ১৯৭১ সালের যা কিছু অর্জন তা চোখের সামনে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাস, গণআন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সব আন্দোলনেই ছাত্রদল জড়িত। ৯০ এর গণআন্দোলনেও ছাত্ররা জড়িত ছিল। কিন্তু বর্তমান সময়ে শাসক দলের নির্যাতন ভিন্ন । কাজেই ৯০ এর চেতনাকে ধারণ করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। : আয়োজক সংগঠনের সভাপতি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, প্রশিণ বিষয়ক সম্পাদক এ বি এম মোশাররফ হোসেন, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন, সহ-সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহ-শিা বিষয়ক সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, ৯০ এর সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের সাবেক ছাত্রনেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, খন্দকার লুৎফুর রহমান, সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।

এছাড়া কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, সিনির সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন, সিনিয়র সহ সভাপতি মোস্তাফা কামাল রিয়াদ, যুবদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহীন, ছাত্রদলের সভাপতি রাজীব আহসান, সহ সভাপতি ইকতিয়ার কবির, আবু আতিক আল হাসান মিন্টু এবং শহীদ নাজির উদ্দিন জেহাদের বড় ভাই কে এম বশির প্রমুখ।  জেহাদ স্কোয়ারে বিএনপির শ্রদ্ধা : শহীদ জেহাদ দিবস উপলে গতকাল মঙ্গলবার দৈনিক বাংলা মোড়ে জেহাদ স্কোয়ারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলÑ বিএনপি। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবিরের নেতৃত্বে দলের পক্ষ থেকে পু®পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। : জেহাদ স্কোয়ারে ছাত্রদলের শ্রদ্ধা নিবেদন : শহীদ জেহাদ দিবস উপলে দৈনিক বাংলা মোড়ে জেহাদ স্কোয়ারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি রাজিব আহসান ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আকরামুল হাসানের নেতৃত্বে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময়ে ছাত্রদলের হাজারো নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply