সিলেটে ছাত্রলীগের দুইকর্মীর হাত-পা কাটলো দুর্বৃত্তরা

সিলেট বিভাগ

সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটে ছাত্রলীগের দুই কর্মীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। হামলার ঘটনার জন্য ছাত্রশিবিরকে দায়ি করছে ছাত্রলীগ।
সোমবার বেলা ১টার দিকে সোবহানীঘাটস্থ জালালাবাদ কলেজের সামনের রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহত দুইজনকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহতরা হলেন- মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী সিলেট সদর উপজেলার পীরপুর টুকেরবাজারের নূরুল আমিনের ছেলে শাহীন আহমদ (২২) ও জালালাবাদ কলেজের ছাত্র, ছাত্রলীগকর্মী আবুল কালাম আসিফ (১৮)। আসিফ নগরীর উপশহরের জালাল উদ্দিনের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার বেলা ১টার দিকে ৫-৬টি মোটর সাইকেলে হেলমেট পরিহিত কয়েকজন যুবক এসে ছাত্রলীগের ওই দুই কর্মীর উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। তারা কুপিয়ে শাহীনের ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। এছাড়া বাম হাতের একাধিক স্থান ও দুই পায়ের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তাকে ঢাকায় প্রেরণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
অপর ছাত্রলীগ কর্মী আসিফের ডান পায়ের গোড়ালিসহ হাত ও পায়ের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী ২২নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি সোহেল তালুকদার।
আহত ছাত্রলীগ কর্মীরা সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত তরফদার গ্রুপের কর্মী বলে জানা গেছে।
সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল আলিম তুষার আহতরা ছাত্রলীগকর্মী দাবি করে এ হামলার জন্য ছাত্রশিবিরকে দায়ি করেছেন।
মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা জানিয়েছেন, সোবহানীঘাটে ছাত্রলীগের দুইকর্মীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটেছে বলে তাকে কোতোয়ালী থানার ওসি গৌসুল হোসেন অবগত করেছেন। হামলাকারীদের পরিচয় সনাক্ত করা না গেলেও আহতরা ছাত্রলীগ কর্মী বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

Leave a Reply